ঢাকা, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২৩:৪২:২২ || ৬ আশ্বিন ১৪২৬
Advertisement
১১২৫

বিমান বাহিনীর জাদুুঘরে যুক্ত হলো ‘ডাকোটা’

এভিয়েশন করেসপন্ডেন্ট

প্রকাশিত: ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৫  


ঢাকা:বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর জাদুুঘরে সংযোজিত হলো মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজড়িত ডাকোটা উড়োজাহাজ। 

সোমবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) তেজগাঁও পুরাতন বিমানবন্দরে বিমান বাহিনী জাদুঘরে ডাকোটা সংযুক্তির উদ্বোধন করেন ভারতীয় বিমান বাহিনীর ইস্টার্ন এয়ার কমান্ডের প্রধান এয়ার মার্শাল এসবি দেও। 

বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর বিমান বাহিনী ঘাঁটি বাশার এয়ারের অধিনায়ক এয়ার ভাইস মার্শাল এম নাইম হাসান, ভারতীয় বিমান বাহিনীর পালাম বিমান ঘাঁটির এয়ার অধিনায়ক এয়ার ভাইস মার্শাল এসএস সোমেন, বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর এয়ার ভাইস মার্শাল জামান, বিমান বাহিনীর পরিচালক (ইন্টেলিজেন্স) এয়ার কমোডোর বাশারসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এসময় উপস্থিত ছিলেন। 

২০১৪ সালের সেপ্টেম্বর মাসে বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার মার্শাল মোহাম্মদ ইনামুল বারীর ভারত সফরকালে দু’দেশের ঐতিহাসিক সম্পর্ক বিবেচনা করে ভারতীয় বিমান বাহিনী জাদুঘর বাংলাদেশকে এই ডাকোটা উড়োজাহাজ উপহার দিলো। 

হস্তান্তর প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে ভারতীয় বিমান বাহিনী চলতি বছরের ১৪, ১৬ ও ১৯ জানুয়ারি সি-১৭ উড়োজাহাজের মাধ্যমে ডাকোটা উড়োজাহাজটি বাংলাদেশে পৌঁছে দেয়। ভারতীয় বিমান বাহিনী ও বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর টেকনিশিয়ানরা যৌথভাবে উড়োজাহাজটিকে বিমান বাহিনী জাদুঘরে স্থাপন করেন। 

ডাকোটা উড়োজাহাজটি ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সময় সৈন্য পরিবহনসহ বিভিন্ন কাজে সহায়ক ভূমিকা রাখে। বাংলাদেশ বিমান বাহিনী গঠনেও বিশেষ অবদানের স্বাক্ষর বহন করে। ডাকোটা হস্তান্তর প্রক্রিয়াটি দু’দেশের সামরিক বাহিনীর বিদ্যমান সুসম্পর্ক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলে আশা করা যায়।         

১৯৮৭ সালে বিমান বাহিনীর জাদুঘর প্রতিষ্ঠিত হয়। পরবর্তীতে জায়গার অভাবে এটি সবার জন্য উম্মুক্ত করা যায়নি। ২০১৪ সালে পুরাতন বিমান বন্দরে এটি নতুন রূপে যাত্রা শুরু করে। 

বাংলাদেশ সময়: ১৪৪৮ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০১৫


এই বিভাগের আরো খবর